১৬ বছরের নাবালিকার বিয়ে বন্ধ করে দিল সমাজকর্মীরা

ওয়েব ডেস্কঃ
হাওড়া জেলার আমতা থানার খড়দহ গ্রামে এক ১৬ বছরের নাবালিকা মেয়ের সঙ্গে ৩০ বছরেরও বেশি বয়স্ক এক জনের বিয়ে রুখে দিল চাইল্ডলাইনের সদস্যরা। তাঁদের সঙ্গে হাওড়া জেলা যৌথ পরিবেশ মঞ্চের সাথী সংগঠন নিউ এজ সোসাইটির সক্রিয় অংশগ্রহণে বন্ধ হয় এই অসম বয়সের বিবাহ। ঘটনাটি জানাজানি হবার পর পেশায় ট্রলি চালক ওই মেয়েটির পিতা দাবি করেন তার মেয়ের গায়ের রং শ্যামলা হওয়ায় এবং পড়াশোনা না করায় দারিদ্রের বোঝা বইতে না পেরে, প্রায় গোপনেই আগামী বৃহস্পতিবার বিবাহের দিন ক্ষণ ঠিক হয় । পাত্র আমতা ২নম্বর ব্লকের কুশবেড়িয়ার পার্শ্ববর্তী একটি গ্রামের এক ত্রিশোর্ধ শ্রমিক।

গোপন সূত্রে খবর আসে হাওড়া জেলা যৌথ পরিবেশ মঞ্চের কাছে। বাল্যবিবাহের খবর পেয়ে প্রথমে মঞ্চের ওই গ্রামের সমাজসেবীদের দিয়ে বুঝিয়ে বিয়েটা বন্ধ করবার অনুরোধ করা হয়। কিন্তু তাতেও কথা না শোনায় অবশেষে আসরে নামে চাইল্ডলাইনের হাওড়া ইউনিট। চন্দ্রপুর পুলিশ আউটপোষ্টের উচ্চপদস্থ অফিসারদের নিয়ে এদিন এসে হাজির হন তাঁরা নাবালিকার বাড়িতে। এলাকায় হইচই শুরু হয়ে যায়। কান্নাকাটি জুড়ে দেন মেয়ের মা। বিয়ের সমস্ত প্রস্তুতি হয়ে গেছে এই অবস্থায় বিয়ে ভণ্ডুল হলে কী হবে! হাতেপায়ে ধরে বিয়েটা দিয়ে দেওয়ার অনুরোধ জানান নাবালিকার অভিভাবক। বাল্যবিবাহের কুফল বুঝিয়ে এবং কথা না শুনলে বিধিবদ্ধ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কথা মনে করিয়ে চলে আসেন তাঁরা।

অভিযোগ ওঠে রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে এই অসম বয়সের বিবাহ চুপিসাড়ে চালিয়ে দেওয়ার। কিন্তু অবশেষে সমস্ত চেষ্টা বিফলে যায় ।চাইল্ডলাইনের সদস্যরা দীর্ঘক্ষণ ধরে মেয়েটি ও তার বাবা মার সঙ্গে কথা বলে এই বিয়ে বন্ধ করাতে রাজি করান। পরে তাঁরা এলাকায় সচেতনতার বার্তা দেন। লকডাউন পরিস্থিতিতে অভিভাবকরা কর্মহীন হয়ে পড়ায় একদিকে ক্রমবর্ধমান দারিদ্র, হতাশা, অভাব অন্যদিকে নাবালিকাদের স্কুল বন্ধ। এইসমস্ত কারণে বাল্য বিবাহের প্রবনতা বেড়ে গিয়েছে – এমনটাই মত হাওড়া চাইল্ডলাইনের।

গত বছর মার্চ মাস থেকে এখনো পর্যন্ত পাঁচটি নাবালিকার বিবাহ আটকে দিয়েছে হাওড়া জেলা যৌথ পরিবেশ মঞ্চ। এই সমস্যাকে সামাজিক দূষণ হিসাবে দেখে এর বিরুদ্ধে জেলা জুড়ে সচেতনতা কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে বলে জানান পরিবেশ মঞ্চের সম্পাদক শুভ্রদীপ ঘোষ। গ্রামের বাসিন্দা সমাজকর্মী সায়ন দে জানান – এই পাড়ায় আরো অনেকগুলি নাবালিকার বিবাহ গোপনে হয়েছে কয়েকদিনে। যেভাবে আজ এলাকায় হইচই হল তাতে পরবর্তীকালে এরকম ঘটনা ঘটানোর আগে বাবা মায়েরা ভাববেন একবার, এটা নিশ্চিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *