বনগাঁয় গ্রামবাসীদের তৎপরতায় কুয়ো থেকে উদ্ধার বাঘরোল

ওয়েব ডেস্কঃ

আমাদের রাজ্য প্রাণী হলেও পশ্চিম বাংলায় ফিশিং ক্যাট বা বাঘরোল সম্পর্কে সচেতনতা কম হওয়ায় বাঘরোল পিটিয়ে মারার খবর প্রায়ই আসত। ১২ নভেম্বর বনগাঁয় একটি বাঘরোল উদ্ধারের ঘটনা দেখাল যে সামান্য হলেও সচেতনতা প্রসারে সাফল্য আসছে এখন। ঘটনার প্রকাশ বনগাঁর বাগদা অঞ্চলের চাঁদপুরে একটি ফিশিং ক্যট একটি অপরিসর কুয়োয় পড়ে যায়। গ্রামবাসীরা কুয়োটিকে ঘিরে রেখে খবর দেয় পুলিশকে। পুলিশ, বন বিভাগ এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বনগাঁ গ্রিন ওয়েভের যৌথ প্রয়াসে উদ্ধার হয় বাঘরোলটি।

বনগাঁ গ্রিন ওয়েভের সদস্য কৌশিক চক্রবর্তী এই উদ্ধারকার্য চলাকালীন মাছবাঘার কামড়ে সামান্য আহত হলেও আশার আলো দেখছেন ওই দলের সদস্যরা। দীর্ঘ দিন ধরে ওই অঞ্চলে লাগাতার সচেতনতা শিবির করবার ফলে এলাকার মানুষজন রাজ্য প্রাণীর সম্পর্কে জেনেছে এবং সংরক্ষণে তার গুরুত্ব বুঝতে শুরু করেছে। এর ফলে সাম্প্রতিক সময়ে এলাকার মানুষজন লোকালয়ে ফিশিং ক্যাট দেখলে তাকে উদ্ধার করবার জন্য বন দপ্তর, পুলিশ বা স্বেচ্ছাসেবী ওই সংগঠনকে ফোন করছেন।

১২ জানুয়ারি বাগদার চাঁদপুরের গ্রামবাসীরা অসহায় বিপন্ন প্রাণীটির উদ্ধারের সময়ে পূর্ণ সহযোগিতা করেছেন। বনগাঁ গ্রিন ওয়েভ , বন দপ্তর এবং বনগাঁ পুলিশের যৌথ প্রয়াসে উদ্ধার করা বাঘরোলটি বর্তমানে বন দপ্তরের তত্ত্বাবধানে রয়েছে। তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে খুব শীঘ্রই তাকে বন্য পরিবেশে ছাড়া হবে বলে জানিয়েছে বন দপ্তর।

https://www.facebook.com/connecting.people.with.nature/posts/3758612560864412

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *